মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

আপনার জিজ্ঞাসা

প্রঃ কাঠালিয়া থানা কোথায় অবস্থিত?

উঃ কাঠালিয়া থানা শৌলজালিয়া ইউনিয়ন যাইতে হাতের বাম পার্শ্বে রাস্তার উত্তর পার্শ্বে অবস্থিত।

প্রঃ কাঠালিয়া থানার প্রধান কে ?

উঃ কাঠালিয়া থানার প্রধান অফিসার ইনচার্জ (ও.সি)

প্রঃ জেনারেল ডাইরি বা, জিডি কি ?

উঃ- এটি১৮৬১ সালের পুলিশ আইনের ৪৪ ধারা ফৌজদারি কার্যবিধি আইনের ১৫৪/১৫৫ ধারা অনুযায়ী এবং পি আর বি ৩৭৭ বিধি মূলে প্রস্ত্তত ২০০ পৃষ্ঠাযুক্ত ১টি মূল্যবান জরুরী রেজিষ্টার একে জেনারেল ডাইরি বা, জিডি বলা হয়।

প্রঃ এফ.আই. আর কি ?

উঃ কোন আমলযোগ্য অপরাধের সংবাদ থানায় মৌখিক বা,লিখিত ভাবে পৌছুলে থানার অফিসার ইনচার্জ (ও.সি) তার বিবরণটি নির্ধারিত (বি.পি ফরম নং-২৭ বাংলাদেশ ফরম নং-৫৩৫৬) বহিতে লিপিবদ্ধ করেন। একেই এজাহার বা,এফ.আই.আর বলে।

প্রঃ তদন্তকি ?

উঃ- পুলিশ অফিসার বা ম্যাজিষ্ট্রেট এর নিকট হতে ক্ষমতা প্রাপ্ত অপর কোন ব্যক্তি কর্তৃক সাক্ষ্য প্রমাণ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে পরিচালিত সকল কার্যক্রমকে তদন্তবলা হয়।

প্রঃ সুরতহাল রিপোর্ট কি ?

উঃ- কোন ব্যক্তি আকস্কিকভাবে মৃত্যুবরণ করলে বা আত্মহত্যা করলে বা খুন হলে কিংবা দূর্ঘটনায় মারা গেলে পুলিশ অফিসার অথবা ম্যাজিষ্ট্রেট মৃত দেহের বর্ণনা উল্লেখপূর্বক যে রিপোর্ট তৈরি করেন তাকে সুরতহাল রিপোর্ট বলে ।

প্রঃ চার্জশিট কি ?

উঃ- থানার ও.সি বা অন্য কোন ক্ষমতাবান তদন্তকারী অফিসার মামলা তদন্তশেষে যখন জানতে পারেন মামলার উ‡ল্লখিত অপরাধটি সত্য তিনি বি.পি ফরম নং-৩৯ এ অভিযুক্ত আসামিদের প্রকাশ্য আদালতে বিচারের জন্য এবং অভিযুক্ত নয় এমন আসামিদের অব্যাহতি প্রদানের জন্য বিবরণ দিয়ে ম্যাজিষ্ট্রেট এর নিকট যে রিপোর্ট  পেশ করেন তাকেই চার্জশিট বলে।

প্রঃ খুন কি ?

উঃ যদি কোন ব্যক্তি মৃত্যু ঘটাবার উদ্দেশ্য নিয়ে কৃত কোন কার্য দ্বারা মৃত্যু ঘটায় কিংবা এমন দৈহিক আঘাত বা আশু বিপদজনক এর ফলে মৃত্যু ঘটবে জেনেও আনুরূপ কার্যকরে তাই খুন।

প্রঃ মাদক দ্রব্য কি ?

উঃ যেসব দ্রব্য সেবন করলে মানুষের নেশা হয় ও অপ্রকৃতিস্থ হয়, দেহ ও শরীরের পরিবর্তন ঘটে, স্মৃতিশক্তি, যৌনশক্তি  হ্রাস পায় এবং কর্মক্ষমতা লোপ পায় তাই হলো মাদকদ্রব্য।

প্রঃ ফৌজদারি কার্যবিধি আইন কাকে বলে ?

উঃ যে আইনের ভিত্তিতে পুলিশ,ম্যাজিস্ট্রেট এবং বিচারকগণ কার্য সম্পাদন করে থাকেন তাকেই ফৌজদারি কার্যবিধি বলে।

প্রঃ দন্ডবিধি আইন কাকে বলে ?

উঃ যে আইনের ভিত্তিতে ম্যাজিস্ট্রেট এবং বিচারকগণ আসামীকে শাwস্তপ্রদানে করে তাকেই দন্ডবিধি বলে ।

 

 

রুরী সেবা প্রদান:

প্রঃ আইন শৃংঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ ?

উত্তরঃ- অত্র থানা এলাকায় আইনশৃংঙ্খলা নিয়ন্ত্রন করার জন্য পুলিশ সদস্যরা যথাসাধ্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিনিয়ত ০৪টি টহল দল নিয়মিত ভাবে এলাকায় রাত্রি কালীন রণপাহাড়ায় নিয়জিত থাকে। ইহা ছাড়া কোন অভিযোগ আসিলে তাহা আমলে নিয়ে যথাযথ তদন্ত আসামী গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয় এবং যে কোন অভিযোগ তদন্তশেষে দোষীদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে চার্জসিট দাখিল করা হয়। দোষ প্রমান না হলে অভ্যাহতির আবেদন করা হয়।

প্রঃ সাধারন ডাইরী ভুক্ত করণ?

উত্তরঃ- আইন অনুযায়ী আমলের অযোগ্য কোন অপরাধের সংবাদ পাওয়া গেলে তাহা ডাইরী ভুক্ত করিয়া বিজ্ঞ আদালতের অনুমতি সাপেক্ষ্যে তদন্ত করিয়া নন এফ আই আর প্রসিকিউশন দাখিল করা হয়। ইহা ছাড়া হারানো কিংবা নিখোজ সংবাদ ডাইরী ভুক্ত করিয়া প্রয়োজনিয় ব্যবন্থা গ্রহন করা হয়।

 

প্রঃ মামলা গ্রহন ও তদন্ত?

উত্তরঃ- আমল যোগ্য অপরাধের সংবাদ পাওয়া গেলে তাহা এজাহার হিসেবে গন্য করিয়া নিয়মিত মামলা রুজুকরিয়া তদন্তকরা হয় দোষী আসামীদের তাৎক্ষনিক গ্রেফতার করিয়া বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দকরা হয়। পলাতকদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করার আবেদন করিয়া বিজ্ঞ আদালতে আভিযোগ পত্র দাখিল করা হয়।

 

প্রঃ নিরাপত্তা প্রদান ?

 

উত্তরঃ- স্থানীয় জনগনের নিরাপত্তার জন্য থানা এলাকায় নিয়মিত টহল করা হয়। রাত্রী কালীন থানা এলাকায় ০৪টি  টহল পাটি মোতায়ন করা হয়। জরুরী প্রয়োজনে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়া সহ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হয়।

প্রঃ নিয়মিত টহল ?

উত্তরঃ- প্রতিধিন থানা এলাকায় দিনে ২/৩টি টহল  দল এবং রাত্রে ০৪টি টহল দল মোতায়ন করিয়া বিভিন্ন ব্যাংক বিমা ও সরকারী অফিস আদালত ভবন ও বাজারের নিরাপত্তা প্রদান করা হয়।